Skip to content

বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক হ্রদ, প্রাণীরা জলে গেলেই পাথর হয়ে যায়!

    img 20230222 093722

    আপনি ছোটবেলায় এমন অনেক গল্প শুনেছেন, যেখানে জীবন্ত প্রাণীরা পাথরের পরিণত হয়েছে, যা বিশ্বাস করা কিছুটা কঠিন ছিল। কিন্তু আপনি কি জানেন যে এটি কেবল গল্পেই নয় বাস্তবেও ঘটে। আজ আমরা আপনাকে এমনই একটি হ্রদের কথা বলতে যাচ্ছি, যেখানে কোনো পশু বা পাখি গেলে পাথর হয়ে যায়। এই বিপজ্জনক হ্রদটি মেডুসা লেক বা জম্বি লেক নামে পরিচিত। এর নামটি গ্রীক পুরাণের একটি মহিলা চরিত্র ‘মেডুসা’ থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছে, যাকে দেখতে খুব ভয়ঙ্কর।

    img 20230222 093759

    গল্প অনুসারে, সে যার দিকে একবার তাকায় সে পাথর হয়ে যায়। এই হ্রদটি খুবই বিপজ্জনক, যা আফ্রিকা মহাদেশের তানজানিয়া দেশে রয়েছে। সেখানকার মানুষ এই লেকটিকে ন্যাট্রন লেক বলে। রহস্যময় এই হ্রদটি আরুশা অঞ্চলের এনগোরনগোরো জেলায় অবস্থিত। এই রহস্যময় হ্রদ সম্পর্কে বলা হয় যে, এই লেকের কাছে গেলেই আপনি একটি বিশাল লাল রঙের হ্রদ দেখতে পাবেন, যেখানে অনেক পশু-পাখির মূর্তি দেখা যাবে।

    img 20230222 093810

    আসলে এটা সেইসব পশু-পাখির মৃতদেহ যা মূর্তির মতো হয়ে গেছে। এই দৃশ্য দেখতে খুব ভয়ঙ্কর লাগে। জানলে অবাক হবেন যে, স্থানীয় লোকজন ওই এলাকায় যেতে ভয় পান। মানুষ বিশ্বাস করে এই হ্রদ অভিশপ্ত। এমতাবস্থায় বিজ্ঞানীরা এর পেছনের কারণ জানার চেষ্টা করেছেন, কী কারণে সেখানে যাওয়া সব পশু-পাখিই মূর্তি হয়ে যায়। এরপর যেটা জানা গেল, এই লেকের জলের কারণেই এমনটা হয়েছে।

    img 20230222 093747

    আসলে এই হ্রদের জলে সাধারণ জলের চেয়ে বেশি ক্ষার আছে। এই কারণে এই জলের pH স্তর ১০.০৫ পর্যন্ত। Doinyo Lengai আগ্নেয়গিরি এই ক্ষারীয় উপাদান বৃদ্ধির কারণ বলে মনে করা হয়। এই আগ্নেয়গিরি থেকে বেরিয়ে আসা লাভা এই হ্রদের জলে মিশে গিয়ে জলকে ক্ষারীয় করে তোলে, যা খুবই বিপজ্জনক।

    img 20230222 093825

    এটি পৃথিবীর একমাত্র আগ্নেয়গিরি, যার লাভা নাইট্রোকার্বনেট তৈরি করে। শুধু তাই নয়, এই হ্রদের জলে এমন অনেক রাসায়নিক পদার্থ পাওয়া যায়, যার কারণে ধীরে ধীরে পশু-পাখির মৃতদেহ পচে যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়। এই কারণেই এখানে পশু-পাখির মৃতদেহ দেখতে অবিকল মূর্তির মতো।